‘প্রবাসীদের নিরাপত্তা ও স্বার্থ সংরক্ষণে সাংবাদিকদের ভূমিকা অপরিসীম’

0
28

নিউজ ডেস্ক: প্রবাসীদের নিরাপত্তা ও স্বার্থ সংরক্ষণে সরকারের পাশাপাশি সাংবাদিকরাও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারেন। সাংবাদিকরা প্রবাসীদের নানা বিড়ম্বনা, হয়রানী ও ঝুঁকিমুক্তভাবে দেশে নিরাপদ চলাচলে সহায়তা করতে পারেন। দেশে বিনিয়োগের পরিবেশ সৃষ্টি, বিদেশীদের স্বদেশমুখী করা এবং প্রবাসীদের পরবর্তী প্রজন্মদের বাংলাদেশের প্রতি আকৃষ্ট করে গড়ে তোলতে সাংবাদিকরা লবিং করতে পারেন। ভ্রমণে এসে নির্বিঘ্নে চলাফেরা ও নির্ঝঞ্ঝাট কর্ম সম্পাদন সহ প্রবাসীদের সামগ্রিক কার্যক্রম স্বাচ্ছন্দ্য ভাবে করার জন্য সাংস্কৃতিক ও পরিবেশগত বলয় তৈরীতে সাংবাদিকদের ভূমিকা অপরিসীম। প্রবাসী ব্যবসায়ী ও সাংবাদিকদের উচ্চ পর্যায়ের একটি টীম দৈনিক আলোকিত সিলেট কার্যালয় পরিদর্শনকালে কর্মরত সাংবাদিকদের সাথে এক মতবিনিময় সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন।

গত বুধবার সন্ধ্যায় লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মহিব চৌধুরীর নেতৃত্বে প্রবাসী ব্যবসায়ী ও সাংবাদিকদের উচ্চ পর্যায়ের একটি টীম সিলেটের স্থানীয় আঞ্চলিক সংবাদপত্র “দৈনিক আলোকিত সিলেট”র সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় পরিদর্শন করেন। এসময় তাঁরা পত্রিকার নবনিযূক্ত ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক জৈষ্ঠ্য সাংবাদিক আবু তালেব মুরাদ কে অভিনন্দন জানান ও কর্মরত সাংবাদিকদের সাথে এক মতবিনিময় সভায় মিলিত হন।

পত্রিকার সম্পাদক আবু তালেব মুরাদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভার শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন যুগ্ম সম্পাদক মোঃ ফয়ছল আলম।শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন নির্বাহী সম্পাদক গোলজার আহমদ হেলাল। সভায় বক্তব্য রাখেন,লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ব্যবসায়ী ও সাংবাদিক মহিব চৌধুরী, সিলেট চেম্বারের পরিচালক মাসুদ আহমদ চৌধুরী, বাংলাদেশ ও লন্ডনের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী কাইয়ুম চৌধুরী, লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাবের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও ইউকের নতুন দিন পত্রিকার ব্যবস্থাপনা পরিচালক পলি রহমান মজুমদার,ব্যবসায়ী নাদির কাদির,ইন্টারন্যশনাল ব্যবসায়ী রূহী আহাদ, দেশ ও ইউকের ব্যবসায়ী আশিক চৌধুরী, ইউকের ব্যবসায়ী ও টিভি উপস্থাপক বেলাল বদরুল,সিলেট প্রেসক্লাবের কোষাধ্যক্ষ কাউসার চৌধুরী প্রমুখ।

আগত অতিথিবৃন্দকে স্বাগত ও অভ্যর্থনা জানান পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আবু তালেব মুরাদ, যুগ্ম সম্পাদক মোঃ ফয়ছল আলম, নির্বাহী সম্পাদক গোলজার আহমদ হেলাল,স্টাফ রিপোর্টার আবির মোহাম্মদ মুমিত, মাজহারুল ইসলাম সাদী, শেখ জাবেদ আহমদ ও এম এ হান্নান।

এসময় পত্রিকার সম্পাদক আবু তালেব মুরাদ কে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাবের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও নতুন দিন পত্রিকার ব্যবস্থাপনা পরিচালক পলি রহমান মজুমদার।

সভায় লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মহিব চৌধুরী বলেন, দেশে পরিবর্তন ও উন্নয়নের জন্য পজিটিভ চিন্তা করতে হবে। প্রবাসীদের তৃতীয় প্রজন্মকে দেশে ফিরিয়ে আনতে হবে। নতুবা মারাত্মক অর্থনৈতিক সংকট তৈরী হবে। এজন্য সাংবাদিক ও গণমাধ্যমকে লবিং করতে হবে।

তিনি বলেন, শুধুমাত্র ধনীদের বিরুদ্ধে কিংবা রাষ্ট্রের হেডের বিরুদ্ধে লিখলে হয় না। সব দোষ যিনি হেড তিনি করেন না।তিনি বলেন, বিজনেসম্যনদের লুক আফটার করতে হবে পুলিশ ও সাংবাদিকদেরকে।দোষ শুধু না দেখে ধনিক শ্রেণী ও রাষ্ট্রের হেডদের সাকসেসকেও প্রমোট করতে হবে। তাদের সাকসেস স্টরী লিখুন।

তিনি বলেন, পৃথিবীর উন্নত রাষ্ট্র গুলো এমনকি ইংল্যান্ড সহ ফার্স্ট ওয়ার্ল্ডের কান্ট্রিগুলো সাংবাদিকরা চালায়। সেখানে সাংবাদিকরা বিরাট ফোর্স। সাংবাদিকরা যথেষ্ট স্বাধীন ও অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী। বাংলাদেশে সংবাদকর্মীরা দারিদ্রের কষাঘাত জর্জরিত। এখানে সাংবাদিকদের পয়সা নেই।

তিনি বলেন, বিদেশীরা লক্ষী। কিন্তু বিদেশীরা দেশে আসলে বিভিন্ন ঠুনকো কারণে জেলে যেতে হয়, ভিকটিম সাজানো হয়। ফলে পত্রিকার পাতায় বিভিন্ন কুৎসিত অযাচিত প্রতিবেদনও প্রকাশিত হয়। একারণে বিদেশীরা দেশে আসতে ভয় পায়। আবার অনেকেই বিদেশীদের সাইবেরিয়ার পাখির মতো ধ্বংস করার চেষ্টা করে। তিনি বলেন প্রবাসীদের সাইবেরিয়ার পাখি বানানোর দরকার নেই। এদেরকে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করতে হবে।

তিনি পত্রিকার নবনিযূক্ত ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আবু তালেব মুরাদ কে একজন দৃঢ় প্রত্যয়ী ও কর্মদীপ্ত ব্যক্তি উল্লেখ করে বলেন, এখন প্রিন্ট মিডিয়ার ডিফিকাল্ট টাইম। আপনারা এগিয়ে যান। আমাদের সহযোগীতা থাকবে, ইনশাআল্লাহ।দেশ ও জনগণের স্বার্থে প্রয়োজনে হার্ড নিউজ করবেন।তবে শুধু শুধু কোন দল বা গোষ্ঠীকে পরাস্ত করবেন না। সুস্থ সাংবাদিকতায় আপনাদের পথচলা হোক সাবলীল। তিনি বিদেশী ব্যবসায়ী ও প্রবাসীদের হয়রানীমুক্ত করতে সাংবাদিকদের এগিয়ে আসার আহবান জানান। দৈনিক আলোকিত সিলেট প্রবাসীদের জন্য সুনির্দিষ্ট ভাবে কাজ করছে জেনে পত্রিকা কর্তৃপক্ষ কে ধন্যবাদ জানান প্রবাসী এই নেতা।

সিলেট চেম্বারের পরিচালক মাসুদ আহমদ চৌধুরী বলেন, প্রবাসীরা সব জায়গায় ভাল ভূমিকা রাখছেন। লন্ডনে আমাদের মানুষ লীড দিচ্ছেন। কিন্তু, সিলেট বিভিন্ন ক্ষেত্রে নির্যাতিত। আজকে অনেক জায়গায় ৮ লেন, ১২ লেন রাস্তা হচ্ছে। আমাদের ৪ লেন রাস্তাও হচ্ছে না। তিনি বলেন, ইন্ড্রাস্টিয়াল সেক্টরে আমরা অনেক পিছিয়ে। বিদেশীরা দেশে বিনিয়োগ করতে চাচ্ছে না। তারা তাদের বাড়ী ঘর বিক্রি করে চলে যাচ্ছে। পরবর্তী প্রজন্ম এদেশে আসবে কি না সে শংকায় আছি আমরা।তিনি বলেন, সিলেটকে আলোকিত করতে আমাদেরকে এগিয়ে আসতে হবে।এজন্য আলোকিত মানুষদের প্রমোট করতে হবে।

বাংলাদেশ ও লন্ডনের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী কাইয়ুম চৌধুরী বলেন, দৈনিক আলোকিত সিলেট খুব সুন্দর পত্রিকা। প্রবাসীসহ সিলেটবাসী আলোকিত হোক। আমি পত্রিকার সাফল্য কামনা করছি।

লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাবের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও ইউকের নতুন দিন পত্রিকার ব্যবস্থাপনা পরিচালক পলি রহমান মজুমদার বলেন, আপনাদের পরিকল্পনা সফল হোক। আমি আপনাদের অভিনন্দন জানাই। মিডিয়া সেক্টরে আপনারা সগৌরবে স্বমহিমায় উদ্ভাসিত হোন, এ প্রত্যাশা রইলো।

ব্যবসায়ী নাদির কাদির বলেন, আমি যদিও মিডিয়া রিলেটেড ব্যক্তি নয়। মিডিয়া ব্যক্তিদের পাশে থেকে আমি উপলব্ধি করেছি সমাজ উন্নয়নে গণমাধ্যমের বিকল্প নেই।

ইন্টারন্যাশনাল ব্যবসায়ী রূহী আহাদ বলেন, আপনারা স্বাধীনভাবে কাজ চালিয়ে যান। আমরা আপনাদের পাশে আছি।

দেশ ও ইউকের ব্যবসায়ী আশিক চৌধুরী বলেন, দেশের সাথে সম্পর্ক রাখার জন্য মুলত আমরা ব্যবসায় করে থাকি। তেইশ বছর আগ থেকেই এদেশে ব্যবসা করছি। পরবর্তী প্রজন্মের জন্য কালচারালী পরিবেশ তৈরীতে সকলকে কাজ করা দরকার।

ইউকের ব্যবসায়ী ও টিভি উপস্থাপক বেলাল বদরুল বলেন, প্রবাসীরা সবকিছুতেই এগিয়ে আছে। আপনাদের মাধ্যমে দেশের সাথে আমাদের সম্পর্ক আরো শাণিত হবে।

আগত অতিথিবৃন্দকে নিয়ে তাদের সম্মাণে পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আবু তালেব মুরাদ একটি কেক কেটে মনোমুগ্ধকর অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানকে উপভোগ্য করে তুলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here