বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অনশন

0
133

নাটোরের গুরুদাসপুরে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে কলেজ ছাত্রী (১৯) অনশন ও অবস্থান নিয়েছে। প্রতারক প্রেমিক পলাতক থাকায় তার স্বজনরা ওই ছাত্রীকে শারীরিক নির্যাতন করে বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

দু’দিন ধরে অনশনে থাকায় অসুস্থ হয়ে পরলে স্থানীয়রা ওই ছাত্রীকে গুরুদাসপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে। বিয়ে না করলে আত্মহত্যার হুমকি দিয়েছেন ওই তরুণী।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, গত শুক্রবার প্রতারক প্রেমিক তারেক হাসানের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অবস্থান নেন পার্শ্ববর্তী গজেন্দ্র চাপিলা গ্রামের অনার্স প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী। প্রতারক প্রেমিক তারেক হাসান রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিপ্লোমা শিক্ষার্থী।

ভুক্তভোগী কলেজ ছাত্রী জানান, উপজেলার চাপিলা ইউনিয়নের মহারাজপুর গ্রামের (মুক্তবাজার) কাচু মণ্ডলের ছেলে তারেক হাসানের সাথে মুঠোফোনে তার এক বছর আগে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। ছাত্রীর বাসার পাশে তারেকের মাছ চাষের পুকুর থাকায় প্রায়শই নিভৃতে দু‌‌’জন দেখা করতো। বিয়ের প্রলোভনে একাধিক বার তারেক তার সাথে অবৈধ শারীরিক সম্পর্ক করে। ঘটনার দিন বিয়ের আশ্বাসে বাসায় আসার কথা বলে তাকে রেখে কৌশলে তারেক পালিয়ে যান। প্রেমিক তারেক তাকে বিয়ে না করলে আত্মহত্যার কথাও জানায় ওই শিক্ষার্থী।

প্রতারক তারেকের মুঠোফোন রিসিভ না হলে তার পিতা কাচু মণ্ডল শারীরিক নির্যাতনের বিষয়টি অস্বীকার করে জানান, ছেলে বাসায় আসলে বিষয়টি স্থানীয়ভাবে মীমাংসা করে নেয়া হবে।

গুরুদাসপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক শারমিন জাহান জানান, মেয়েটি মহিলা ওয়ার্ডে ভর্তি রয়েছে। তার শারীরিক দুর্বলতা ও শরীরের দু’এক জায়গায় সামান্য আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

গুরুদাসপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রাজ্জাক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ করলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here