আল-জাজিরার বিরুদ্ধে মামলার নথিভুক্তের বিষয়ে জানেন না আবেদনকারী

0
114

দৈনিক সত্যপ্রকাশ ডেস্ক:
‘অল দ্য প্রাইম মিনিস্টার’স মেন’ শিরোনামে সম্প্রচারিত ভিডিওচিত্র ও প্রতিবেদনকে মিথ্যা দাবি করে আল-জাজিরার বিরুদ্ধে করা ক্ষতিপূরণ মামলার আবেদনটি নথিতেই পড়ে আছে। বেশ কিছু দিন পেরিয়ে গেলেও মামলাটি হিসেবে এটি নথিভুক্ত হবে কিনা, জানা যায়নি। যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদের একাংশের সভাপতি মোহাম্মদ রাব্বী আলমসহ পাঁচজন বাদী হয়ে ইউনাইটেড স্টেটস ডিস্ট্রিক্ট কোর্ট অব মিশিগানে মামলার আবেদন করেন।

মিশিগানে বসবাসরত রাব্বী আলম ১ মার্চ নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসে এক সংবাদ সম্মেলনে মামলার আবেদনের বিষয়টি জানান। তবে তাঁর ওই সংবাদ সম্মেলনে যুক্তরাষ্ট্র শাখা আওয়ামী লীগের কোনো নেতাকে দেখা যায়নি।

মামলার অন্যতম আবেদনকারী রাব্বী আলমের কাছে আবেদনের অগ্রগতি সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি সুস্পষ্ট কিছু বলতে পারেননি। শুধু বলেছেন, কবে মামলা হিসেবে নথিভুক্ত হবে, তা তিনিও জানেন না। কারণ, এটি এখনো কেবল একটি নথিভুক্ত সিরিয়াল নম্বর।

দোহাভিত্তিক আল-জাজিরা টিভি ও পাঁচজনের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগান অঙ্গরাজ্যের আদালতে মামলার আবেদন করেন রাব্বী আলমসহ পাঁচজন। মামলার পাশাপাশি আল-জাজিরায় সম্প্রচারিত ‘অল দ্য প্রাইম মিনিস্টারস মেন’-এর ভিডিও অবিলম্বে প্রত্যাহার করার আবেদন জানানো হয়। পাশাপাশি বিবাদীদের কাছ থেকে ৫০০ মিলিয়ন ডলার ক্ষতিপূরণ আদায়ের নির্দেশ চাওয়া হয়েছে।

রাব্বী আলম বলেন, ক্ষতিপূরণ মামলার জন্য প্রতিকার চেয়ে আবেদন করা হয়েছে। কারণ, এই ভিডিওচিত্রের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধু কন্যা, বর্তমান প্রধানমন্ত্রীসহ দেশের সামরিক বাহিনীর ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হয়েছে।

ফেডারেল কোর্টে মামলার জন্য কোনো আইনজীবী নিয়োগ করা হয়েছে কি না এমন প্রশ্নে রাব্বী আলম বলেন, আইন বিষয়ে তাঁর পড়াশোনা রয়েছে। এই মামলা তিনি নিজেই পরিচালনা করবেন। মামলার বিষয়ে বাংলাদেশ থেকে কোনো সাড়া পেয়েছেন কিনা, এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, না দেশ থেকে কেউ কোনো সাড়া দেয়নি। তিনি একজন দেশপ্রেমিক মানুষ বলেই মামলাটি করেছেন।

১ মার্চ সংবাদ সম্মেলনে রাব্বী আলম বলেছিলেন, মামলার অন্য বাদীদের মধ্যে রয়েছেন শেরে আলম, রিজভী আলম, বঙ্গবন্ধু পরিষদ ও বঙ্গবন্ধু কমিশন্স নামের সংগঠন।

এই মামলা প্রসঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদ এবং বঙ্গবন্ধু কমিশন্সের সভাপতি, নিউজার্সির প্লেন্সবরো শহরের কাউন্সিলর, একুশে পদকপ্রাপ্ত ড. নুরুন্নবী বলেন, রাব্বী আলমের মামলার আবেদনের বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না। তিনি সংবাদমাধ্যমে বিষয়টি জানতে পারেন। পরেও কেউ তাঁর সঙ্গে এ বিষয়ে কোনো আলাপ করেনি। যুক্তরাষ্ট্র শাখা আওয়ামী লীগ ও বঙ্গবন্ধু পরিষদের জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টা নাসির খানও আল–জাজিরার বিরুদ্ধে মামলার আবেদনের বিষয়ে কিছুই জানেন না। মামলার বাদী রাব্বী আলমকেও তিনি ভালোভাবে জানেন না।

নাসির খান বলেন, এটি কোনো মামলা হয়নি। যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক হিসেবে যেকোনো অভিযোগ আদালতের নথি বইয়ে জায়গা পাবে এবং একটা সিরিয়াল নম্বর তারা দেবে। তার মানে এই নয়, এটা মামলা বলে গৃহীত হয়েছে।

রাব্বী আলম সম্পর্কে মিশিগানে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, তিনি সাবেক বারাক ওবামা ও জো বাইডেনের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারণার কাজ করেছেন। তিনি নিজেও এই প্রতিবেদকের কাছে একজন রেজিস্টার্ড ডেমোক্র্যাট বলে উল্লেখ করেছেন। রাব্বী আলম আরবি ভাষার ওপরে পড়াশোনা করেছেন। মিশিগানের ডেট্রয়েটের কাউন্সিলর পদে নির্বাচন করে ২৯ ভোট পেয়েছিলেন। সূত্র: প্রথম আলো, উত্তর আমেরিকা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here