বান্ডিল বান্ডিল টাকা দিয়েও গরু পাননি যারা!

0
7

নিউজ ডেস্ক: রাজধানীর আফতাবনগর পশুর হাটে ঘুরে গরুর দরদাম করেন কয়েকজন ক্রেতা। দাম মেটানোর পর বেপারিদের বান্ডিল বান্ডিল টাকাও দিয়েছেন তারা। কিন্তু তাদের ভাগ্যে গরু জোটেনি। উপরন্তু এই গরু ক্রেতাদের গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

কারণ, তাদের ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোটের বান্ডিলের ভেতরের নোটগুলো ছিল সব ১০, ২০, ৫০ ও ১০০ টাকার। কোরবানির পশুর হাট থেকে এমন প্রতারণার অভিযোগে ৩৫ জনকে গ্রেপ্তার করেছে বাড্ডা থানা পুলিশ।

আজ শুক্রবার বিকেলে বাড্ডা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. পারভেজ ইসলাম গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, ‘চার-পাঁচ ব্যক্তি বৃহস্পতিবার রাতে আফতাবনগর পশুর হাট থেকে এক লাখ ১৩ হাজার টাকায় একটি গরু কেনে। তারা বেপারিকে ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোটের একাধিক বান্ডিল দেয়। বেপারি দ্রুত ক্রেতাদের কাছে গরু হস্তান্তর করেন। কিন্তু বেপারি যখন বান্ডিল খুলে টাকা গোনা শুরু করেন তখন দেখতে পান বান্ডিলের ওপরের ও নিচের নোট ৫০০ আর ১০০০ টাকার হলেও ভেতরে সব ২০, ৫০ ও ১০০ টাকার নোট। বিষয়টি দ্রুত তারা সবাইকে জানায়। এরপর পুলিশ এই প্রতারক চক্রটিকে গ্রেপ্তার করে।’

পুলিশ জানায়, বান্ডিলের ওপরে ও নিচে দুটি করে ১০০০ টাকার বা ৫০০ টাকার নোট রেখে ভেতরে সব ছোট নোট সাজিয়ে ইলাস্টিক দিয়ে বান্ডিল তৈরি করেন এই প্রতারকরা। এরপর তারা গরুর দরদাম করার পর টাকা দিয়ে দ্রুত হাট থেকে কেটে পড়েন।

ওসি পারভেজ ইসলাম আরও বলেন, ‘প্রথমে চক্রের কয়েকজনকে গ্রেপ্তারের পর প্রযুক্তির সহায়তায় মোট ৩৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। প্রাথমিক স্বীকারোক্তিতে গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা জানায়, বিভিন্ন পশুর হাট থেকে এভাবে প্রতারণা করে আটটি গরু হাতিয়ে নিয়ে বিক্রি করেছে তারা। তাদের বিরুদ্ধে বাড্ডা থানায় একটি প্রতারণার মামলা হয়েছে।’

এই প্রতারক চক্রের কাছ থেকে একটি পিকআপ ভ্যান, একটি প্রাইভেটকার, এক হাজার টাকার ৫৮টি নোট, ১০০ টাকার ৩২৬টি নোট, ৫০ টাকার ৯০টি ও ১০ টাকার ৪৮৭টি নোট জব্দ করা হয়েছে বলেও জানিয়েছে পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here