সুনামগঞ্জে বাড়ছে হাহাকার

0
18

নিউজ ডেস্ক:
সুনামগঞ্জে চলছে হাহাকার। গত বৃহস্পতিবার রাত থেকেই সুনামগঞ্জ সারা দেশ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে।

কিছু এলাকায় বিদ্যুৎ এলেও এখন পর্যন্ত কোনও কিছুই স্বাভাবিক হয় নি। সুনামগঞ্জে কিছু সময় পর হেলিকপ্টার দিয়ে বন্যা পর্যবেক্ষণ করছে সেনাবাহিনীর টিম।

সুরমার পানি এখনও বিপৎপদসীমার ৩০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে বইছে। গত ২৪ ঘন্টায় সুনামগঞ্জে বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে ৫৩ মিলি মিটার।

সুনামগঞ্জ-সিলেট সড়কে পানি কিছুটা কমলেও নিচু সড়ক ও ঘর বাড়িতে এখনও পানি নামেনি।

কত দিন পর সুনামগঞ্জ স্বাভাবিক হতে পারে তা জানাতে পারে নি প্রশাসন।

মানুষের চোখে মুখে শুধু হাকাকার আর হাহাকার কেউ কাউকে সাহায্য করার মত অবস্থা নেই। রয়েছে খাবার সংকট। বেশি টাকা দিয়েও খাবার পাওয়া যাচ্ছে না। এক প্যাকেট মোম বাতি বিক্রি হচ্ছে ১৫০ টাকা ধরে। তাও মাত্র ৫ পিস।

জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী আবুল কাশেম জানান, আমরা প্রায় ৫ লাখ পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট বিতরণ করেছি। এ ছাড়াও আমরা গাড়ি দিয়ে ৬০ হাজার লিটার বিশুদ্ধ পানি দিয়েছি আশ্রয় কেন্দ্র গুলোতে।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহি প্রকৌশলী মো. শামসুদ্দোহা বলেন, নদীর পানি এখনও বিপদসীমার উপরে বইছে, বৃষ্টিপাত কম হচ্ছে আশা করা যায় এই পরিস্থিতির দ্রুত উন্নতি হবে।

পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান জানান, বন্যার মধ্যে আইন শৃঙ্খলা রক্ষা করতে পুলিশ সজাগ আছে। যাতে করে ডাকাতি বা চুরি না হয়। এ ছাড়া আমরা বন্যার্থদের সাহায্য করতে জেলা সকল উপজেলায় কাজ করছে পুলিশ।

জেলা প্রশাসক জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, আমরা উদ্ধার অভিযান চালাচ্ছি ও শুকনা খাবার বিতরণ চলছে। যৌথবাহিনী কাজ করছে।