সুইডেনের দুই সাংসদের সাথে প্রবাসী বাংলাদেশী কমিউনিটির মতবিনিময়

0
29

নিউজ ডেস্ক:
সুইডিশ পার্লামেন্টের লেফ্ট পার্টির সংসদ সদস্য জন্স হোল্মস এবং লোরেনা দেলগাদো এর সাথে মতবিনিময় করেেছেন দেশটির প্রবাসী বাংলাদেশি কমিউনিটির নেতৃবৃন্দ। গতকাল ৪ই মে সুইডেন বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় সংগঠনের উদ্যোগে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

প্রবাসী বাংলাদেশী কমিউনিটির নেতৃবৃন্দ সুইডিশ পার্লামেন্টে অনুষ্ঠিত এ সভায় প্রতিনিধিত্ব করেন। সভায় বাংলাদেশের চলমান পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করা হয়। এসময় সুইডেনে বসবাসরত বাঙালিদের পক্ষ থেকে শেখ হাসিনা সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ডের চিত্র তুলে ধরা হয়। সেই সাথে বাংলাদেশ বিরোধী প্রোপাগান্ডার বিরুদ্ধে সোচ্চার হবার আহ্বান জানানো হয়।

মতবিনিময়কালে তথ্য উপাত্তসহ বিএনপি-জামাত এর ধ্বংসাত্মক রাষ্ট্রবিরোধী জঙ্গি বাদী কার্যকলাপ সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরা হয়।

নেতৃবৃন্দ বলেন, বাংলাদেশকে উন্নয়নশীল ও সেক্যুলার দেশে পরিণত করার ক্ষেত্রে এবং জঙ্গীবাদ দমনে বঙ্গবন্ধু কন্যা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। এছাড়া সরকারের উন্নয়ন, নারীর অধিকার, রোহিঙ্গা সমস্যা আইনশৃঙ্খলা রক্ষা, স্থিতিশীল ধারবাহিক সরকার এর প্রয়োজনীয়তায় ও প্রবাসী বাংলাদেশী কমিউনিটির পক্ষ থেকে কিছু দাবি পেশ করা হয় ।

দাবিগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো — বাংলাদেশ থেকে দক্ষ জনবল সুইডেনে চাকরি দিয়ে সুইডেনে আনা, বাংলাদেশে বিনিয়োগ করা, সুইডিশ সংসদের মাধ্যমে জাতিসংঘ ও ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের মাধ্যমে তাদেরকে নিজের দেশে ফেরত নিয়ে তাদের নিশ্চিত ও সুন্দর জীবনের নিশ্চয়তা প্রদান করা, সুইডেনে বসবাসরত বাংলাদেশিদের জন্য স্থায়ী সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণ, বাংলাদেশে থেকে আমদানি বৃদ্ধি করা, আন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবসের সম্মানে এখানে একটি স্থায়ী শহীদ মিনার নির্মাণ, বাংলাদেশিদের জন্য বাংলা ভাষায় ড্রাইভিং লাইসেন্সের পরীক্ষার ব্যবস্থা করা, সুইডেনের একটি রাস্তা সারা বিশ্বের নিপীড়িত মানুষের নেতা বাংলাদেশের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে করার জন্য অনুরোধ করা হয়।

এছাড়া বাংলাদেশী ছাত্রদের জন্য আরও বেশি বৃত্তি দেওয়াসহ আরো কিছু দাবি ও দুই পক্ষের মধ্যে বিভিন্ন বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করা হয় |

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বে বর্তমানে বাংলাদেশের উন্নয়ন ও স্থিতিশীলতাকে বজায় রেখে মানুষের জীবনযাত্রার মানোন্নয়নে গৃহীত পদক্ষেপ সমূহ তুলে ধরা হয়।

সুইডিশ সরকারের শরিক দল লেফ্ট পার্টির সংসদ সদস্য জেন্স হোল্মস তার বক্তব্যে শেখ হাসিনার সাথে তাঁর ঢাকায় সাক্ষাৎ এর কথা উল্লেখ করেন। শেখ হাসিনা ও তার সরকারের ভূয়সী প্রশংসা করেন এবং বাংলাদেশ ও সুইডেনের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আরও জোরদার জন্য সুইডিশ পার্লামেন্টে কার্যকর ভূমিকা রাখার কথা ব্যাক্ত করেন।

লেফ্ট পার্টির সংসদ সদস্য লোরেনা দেলগাদো তাঁর বক্তব্যে পশ্চিমা দেশের গ্রীন হাউসের কারনে যে বাংলাদেশ অনেক বড় গ্লোবাল ওয়ারমিংয়ের শিকার হচ্ছে তা উল্লেখ করে বাংলাদেশকে এই ব্যাপারে সাহায্য করার জন্য এবং রোহিঙ্গা ইসু নিয়ে সুইডিশ এবং ইউরোপিয়ান পার্লামেন্ট কথা বলার আশাব্যাক্ত করেন ও বাংলাদেশ সম্পর্কে সুইডিশ সরকার এর ইতিবাচক মনোভাব এর কথা উল্লেখ করেন।

সভায় বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক জনাব খালেদ চৌধুরী তার বক্তব্যে রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে বলেন, রোহিঙ্গাদের শুধু সাহায্য করলেই হবে না, সুইডেন ও ইউরোপিয়ানদের মিয়ানমার এর আরও চাপ দিতে হবে যেন তারা রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে স্বসম্মানে নিয়ে যায়।

বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় সংগঠনের নেতা দলিল উদ্দিন শেখ হাসিনা সকারের আমলে বাংলাদেশের উন্নয়নের কথা উল্লেখ করেন এবং জামাত-বিনপির শাসনামলে জঙ্গিবাদের উত্থান ও বোমা হামলার কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে বাংলাদেশ সরকারের সাথে আরো গভীর ভাবে কাজ করার আহ্বান জানান।

সভায় আরও বক্তব্য প্রদান করেন, সংগঠনের নেতা হেদায়েতুল ইসলাম এবং তিনি সুইডেন থেকে বাংলাদেশের বিরোধী প্রপাগান্ডার বিরুদ্ধে সোচ্চার হবার আহ্বান জানান।

সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের নেতা নওরোজ চৌধুরী, আনিস হাসান তপন, মান্না দে ,পরিমল দেব পিনকু ,শ্যামল দত্ত, আব্দুল আজিজ ,আরিফ হোসাইন, ফরহাদ রেজা, জমির উদ্দিন, মহসিন হোসেন, মিকাইল হোসাইন,কবির আহমেদসহ আরো অনেকে।

সভা শেষে তিনি সবাইকে পার্লামেন্ট ঘুরিয়ে দেখান এবং বিভিন্ন কার্যক্রম সম্পর্কে অবহিত করেন। পরিশেষে লেফ্ট পার্টির সংসদ সদস্য জন্স হোল্মস এবং লোরেনা দেলগাদোকে বঙ্গবন্ধুর আত্মজীবনী (ইংরেজি অনুবাদ ) ও
সুইডেনে বসবাসরত প্রবাসী বাঙালি সুইডেন যুবলীগের আহ্বায়ক যুবায়দুল হক সবুজ কর্তৃক প্রকাশিত ও সুইডিশ ভাষায় অনুবাদিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ” ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাণের ” বই উপহার দেওয়া হয়।