সিলেট জেলা বিএনপির সভাপতি প্রার্থীতা প্রত্যাহার করলেন মেয়র আরিফ

0
55

নিউজ ডেস্ক:
সিলেট জেলা কাউন্সিলে সভাপতি পদে প্রার্থী হয়েছিলেন সিলেট সিটি কর্পোরেশন, বিএনপি’র কেন্দ্রীয় সদস্য আরিফুল হক চৌধুরী।

পরে কেন্দ্রীয় নির্দেশে তিনি সভাপতি পদ থেকে প্রার্থীতা প্রত্যাহার করেছেন।

মঙ্গলবার (২২ মার্চ) নগরীর একটি কমিউনিটি সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে প্রার্থীতা প্রত্যাহারের ঘোষনা দেন।

এসময় মেয়র বলেন, বিএনপি দেশের বৃহত্তম গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক দল, সেই দলের একনিষ্ঠ কর্মী হিসেবে আমার কাছে তানবারণ। বহু জাতীয় স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয় একজন ব্যাক্তির চেয়ে অবশ্যম্ভাবী ভাবে অতীব গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের এ নেতা প্রেসিডেন্ট জিয়া বলে গেছেন -“ব্যাক্তির চেয়ে দল বড়, দলের চেয়ে দেশ” তাই সেই মতো। বাইরে আমার এক কদম নেই, এবং চলতে পারে না।
এমতাবস্থায় দলের হাইকমান্ড মনে করেছেন একজন মেয়র হয়ে সিলেটের যে
উন্নয়ন প্রকল্প নিয়ে আপনাদের সহযােগিতায় নগরবাসীর আশা-আকাঙক্ষা অনুযায়ী পরিশ্রম করার চেষ্টা করছি সে লক্ষে আরো মনোনিবেশ করে আগামীতে দলের স্বার্থে বড় কোন কাজের জন্য প্রস্তুত থাকা বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

তিনি আরো বলেন, স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর মহালগ্নে আমি গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করছি মহান স্বাধীনতার ঘােষক রণাঙ্গনের বীর মুক্তিযােদ্ধা, মুক্তিযুদ্ধের প্রথম ব্রিগেড কমান্ডার লেঃ কর্ণেল জিয়াউর রহমান। সহ সকল শহীদ এবং যুদ্ধাহত মুক্তিযােদ্ধাগন। গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্মৃতি রােমন্থন করি সকল দেশপ্রেমিক রাজনৈতিক নেতা যারা এই দেশ গঠনে আত্মত্যাগ করে গেছেন।
আমি সিলেটের প্রাণ পুরুষ মরহুম এম সাইফুর রহমান, বীর মুক্তিযােদ্ধা মাসুদ চোধুরা, রাজা, এডভােকেট শহিদ আলী,খন্দকার আবদুল মালিক ফতেহ ইউনুস খান, রফিকুল ইসলাম শিশু, ফাতেমা চৌধুরী, শ্রী সুধির নারায়ণ, ঝর্ণা দে,বিলকিস জায়গিরদার মােজাম্মেল আলি সহ সকল পর্যায়ের বিএনপি ও অন্যান্য রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ যারা আমাদের ছেড়ে পরকালে পাড়ি দিয়েছেন আমি তাদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত ও শান্তি কামনা করি। মহান রব আল্লাহ পাক তাদের সকলকে জান্নাত নসীব করুন আমিন। আমি তীব্র ক্ষোভ ও দুঃখের সাথে স্মরণ করছি গুম হয়ে যাওয়া সিলেটের আরেক প্রাণ পুরুষ জননেতা এম ইলিয়াস আলী, দিনার, জুনেদ সহ সকল নেতাকর্মীর। অবিলম্বে তাদের খুঁজে বের করার উদাত্ত আহ্বান জানাই সরকারের প্রতি ।

মেয়র বলেন,শহিদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের হাতে গড়া এ জমিনকে সবুজ করতে এখনাে অক্লান্ত লড়াই করে যাচ্ছেন চলমান আন্দোলনের সর্বাধিনায়ক দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া। গণতান্ত্রিক এই আন্দোলনের ফসল তুলে সাদামাটা মানুষের হরণ করা ভােটের অধিকার ফিরিয়ে দিতে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন আগামী দিনের রাষ্ট্রনায়ক দেশনায়ক তারেক রহমান। দেশে গনতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে সচেষ্ট থেকে আন্দোলন আরও শাণিত করতে হবে নব্বইয়ের মতাে, তবেই ফিরে আসবেন দেশনায়ক তারেক রহমান এবং সেদিনের অর্পিত যে কোন দায়িত্ব মাথায় তুলে জীবন উৎসর্গ করতে কুণ্ঠিত নই আমি। বরং আপােষহীন নেত্রীর শিক্ষায় অবিচল আমার অবস্থান। আজ বিএনপি কর্মী ও জনতার আরিফ জনতার জন্যে সারাজীবন উৎসর্গ করে দিলাম।

সংবাদ সম্মেলনে দলের মহানগর ও জেলা শাখার বিভিন্নস্তরের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। পাশাপাশি যুবদল, ছাত্রদলসহ অন্যান্য অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।