সিলেটের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর জরুরী সভা

0
85

নিজস্ব প্রতিবেদক: পরাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন এমপি বলেছেন সিলেটের করোনা পরিস্থিতির উন্নয়নে কঠোর লকডাউন এবং স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলতে মানুষকে বাধ্য করতে হবে। সংক্রামণের হার কমাতে না পারলে আইসিইউ বেড বা হাসপাতাল বাঢ়িয়ে কোন লাভ হবে না। তিনি বলেন, দেশের অন্য যে কোন অঞ্চল থেকে সিলেটে করোনা চিকিৎসার সুব্যবস্থা রয়েছে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা অচিরেই এ পরিস্থিতি সামাল দিতে পারবো। ইতোমধ্যে দেশে প্রায় ৪৫ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন এসেছে আরো পাইপ লাইনে রয়েছে।

শুক্রবার সকাল ১১টায় তাঁরই আহ্বানে সিলেটের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে আয়োজিত ‘সিলেট জেলায় করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ও প্রতিরোধসহ সার্বিক ব্যবস্থাপনার লক্ষে গঠিত কমিটির ভার্চুয়াল সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। এতে সিলেটের করোনা আক্রান্তের সংখ্যা,চিকিৎসা ব্যবস্থা, কোথায় কী উদ্যোগ নিতে হবে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।
বক্তারা পবিত্র ইদুল আযহায় করোনা সংক্রামনের হার যাতে না বাড়ে, রাস্তাঘাটে যাতে কেউ পশুর হাট বসাতে না পারে সে ব্যবস্থা গ্রহন করতে সিটি কপোরেশন, জেলা প্রশাসন এবং পুলিশ প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানান।

সিলেটের জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলামের সভাপতিত্বে জুমমিটিং এ অংশ নেন সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, স্বাস্থ্য সচিব লোকমান হোসেন মিয়া,
শাহ জালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ, সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার মো. খলিলুর রহমান, ডিআইজি সিলেট রেঞ্জ মফিজুর রহমান, পুলিশ কমিশনার নিশারুল আরিফ, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন আহমদ, সিলেট ওসমানী হাসপাতালের উপ পরিচালক হিমাংশু লাল রায়, সিলেট ইসলামিক ফান্ডেশনের উপ পরিচালক ফরিদ উদ্দিন আহমদ।
রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের মধ্যে যুক্ত ছিলেন, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ, জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ড. আহমদ আল কবির,জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নাসির উদ্দিন খান, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন।

সভাপতির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলাম সিলেটে অক্সিজেন সাপ্লাই নিরবিচ্ছিন্ন রাখার আহ্বান জানান।