সিলেটসহ সব সার্কিট হাউসে ব্যয় কমানোর নির্দেশ

0
13

নিউজ ডেস্ক:
কৃচ্ছ্রসাধনের মাধ্যমে ব্যয় ও বরাদ্দ করা অর্থের অতিরিক্ত ব্যয় না করতে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের অধীন সার্কিট হাউসগুলোর কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছে সরকার। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে জারিকৃত একটি বিজ্ঞপ্তিতে এসব নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের অধীন সার্কিট হাউসগুলোর চলতি অর্থবছরের (১ জুলাই থেকে আগামী বছরের ৩০ জুন) জন্য পরিচালন কার্যক্রমসহ অন্যান্য ব্যয় নির্বাহের বিষয়ে কৃচ্ছ্রসাধনসহ একগুচ্ছ শর্তে বিভিন্ন উপখাতে বাজেট বরাদ্দ ও খরচের মঞ্জুরি করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। এসব শর্তের মধ্যে রয়েছে অতিরিক্ত ব্যয়ের ক্ষেত্রে ব্যয়োত্তর অনুমোদন প্রদান করা হবে না বিধায় বরাদ্দ করা অর্থের অতিরিক্ত ব্যয় করা যাবে না। এ ছাড়া বরাদ্দ করা অর্থের মধ্যে সীমাবদ্ধ থেকে ব্যয় করতে হবে এবং যেকোনো খাতের বকেয়া বিল রাখার প্রবণতা পরিহার করতে হবে।

বরাদ্দ করা অর্থ সরকারের প্রচলিত আর্থিক ও প্রশাসনিক নিয়মাবলি প্রতিপালন ও কৃচ্ছ্রসাধনের মাধ্যমে ব্যয় করতে হবে। সার্কিট হাউসের প্রতি মাসে নিয়মিত সরকারের প্রাপ্য ইউটিলিটিজ বিল (বিদ্যুৎ, পানি, পৌরকর, গ্যাস ও জ্বালানি ইত্যাদি) পরিশোধে নিবিড় তত্ত্বাবধান করতে হবে।

আরও শর্ত হচ্ছে বরাদ্দ অর্থের ভিত্তিতে অর্থবছরের শুরুতেই বাজেট বাস্তবায়ন পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে। শেষদিকে তড়িঘড়ি করে বরাদ্দ করা অর্থ ব্যয়ের প্রবণতা পরিহার করতে হবে। প্রদত্ত বরাদ্দপত্রের বিষয়ে কোনো জিজ্ঞাসা থাকলে ব্যবস্থা গ্রহণ না করে মন্ত্রণালয়কে অবহিত করতে হবে।

এর আগে ৭ জুলাই জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে দেওয়া এক বিজ্ঞপ্তিতে কৃচ্ছ্রসাধনের মাধ্যমে ব্যয় করতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের (ইউএনও) নির্দেশ দেয় সরকার। এরও আগে সরকারি কর্মকর্তাদের বিদেশ ভ্রমণ এবং গাড়ি কেনায় লাগাম টানতে সরকার একগুচ্ছ শর্ত দেয়।