শাবিতে এবার গণঅনশন শুরু

0
33

নিউজ ডেস্ক:
সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শাবিপ্রবি) এবার শিক্ষার্থীরা আমরণ গণঅনশন শুরু করেছেন। উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে শনিবার (২২ জানুয়ারি) রাত ৮টার দিকে এ কর্মসূচি পালন শুরু করে তারা।

এর আগে সন্ধ্যা সোয়া ৭টায় প্রেস ব্রিফিং করে কর্মসূচি ঘোষণা করেন শিক্ষার্থীরা। এসময় লিখিত বক্তব্যের মাধ্যমে তারা জানান, গত ১৬ জানুয়ারি শাবি শিক্ষার্থীদের উপর উপাচার্য ফরিদ উদ্দিন আহমেদের নির্দেশে বিনা উস্কানিতে পুলিশ লাঠিচার্জ করে, তাঁদের উপর রাবার বুলেট ও শব্দবােমা নিক্ষেপ করে। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্ধশতাধিক শিকারী গুরুতর আহত হন। আইসিইউতে যখন একজন শিক্ষার্থী ভর্তি, আহতদের সাড়ি লম্বা হচ্ছে হাসপাতালে, তখন উপাচার্য ফরিদ উদ্দিন আহমেদ গণমাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘােষণা করেন এবং এই ঘটনার বানােয়াট- মনগড়া গল্প তৈরি করে এই ন্যাক্কারজনক হামলার জন্য শিক্ষার্থীদের দায়ী করেন।

প্রেস ব্রিফিংকালে শিক্ষার্থীরা আরও বলেন, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল শিক্ষার্থীদের কাছে একেবারে শুরু থেকেই এ নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই যে- ফরিদ উদ্দিন আহমেদ একজন অযোগ্য ব্যক্তি। শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ফরিদ উদ্দিন আহমেদকে ক্যাম্পাসে অবাঞ্চিত ঘোষণা করে তাঁর পদত্যাগের আন্দোলনে নামে। এরই ধারাবাহিকতায় আমরা আমরণ অনশনের ঘােষণা দেই এবং ২৩ জন শিক্ষার্থী দীর্ঘ ৭৫ ঘণ্টার বেশি সময় কিছু না খেয়ে থাকে। এমনকি এক বিন্দু পানিও পান করেনি। অনশনে থাকলেও এখন পর্যন্ত উপাচার্য পদত্যাগ করেনি। এর মধ্যে মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী মহোদয় আমাদেরকে সমস্যা সমাধানের জন্য আলােচনায় বসার আহ্বান করলে শিক্ষার্থীরা তাতে সম্মত হলেও অনশনরত শিক্ষার্থীদের শারীরিক অবস্থা বিবেচনা করে শিক্ষামন্ত্রীকে সিলেটে এসে অথবা অনলাইনে আলোচনার অনুরোধ জানানো হয়। এ সিদ্ধান্ত জানানোর পর এখন পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের সাথে কোনো প্রকার যােগাযােগ করা হয়নি। উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে ৭৫ ঘণ্টা টানা অনশন করে শাবিপ্রবির শিক্ষার্থীরা যখন মৃত্যুর দোরগোঁড়ায়, তখনও উপাচার্য নির্বিকার। এই অবস্থায় শনিবার রাত ৮টা থেকে আন্দোলনরত সকল শিক্ষার্থী আমরণ অনশনে বসবেন এব্ং ভিসি’র পদত্যাগপত্র নিজ চোখে দেখার আগ পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা অনশন ভাঙবে না।