রাজমিস্ত্রি যুবককের প্রেমের টানে বাংলাদেশে মরিশাসের তরুণী

0
51

নিউজ ডেস্ক:
ভাষা-সংস্কৃতি, অর্থনৈতিক ভেদাভেদ ভুলে প্রেমের টানে সুদূর মরিশাস থেকে বাংলাদেশে ছুটে এসেছেন এক তরুণী। তার নাম বিবি সোহেলা (২৬)। গত তিন বছর পূর্বে মরিশাসে পরিচয় হয় বাংলাদেশি ছেলে মুস্তাকিন ফকিরের (২৭) সঙ্গে।

মুস্তাকিন কৃষক পরিবারের সন্তান। তিনি প্রবাসে একটি কনস্ট্রাকশন কোম্পানিতে রাজমিস্ত্রির কাজ করতেন। বিবি সোহেলা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক পাশ করে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত আছেন।

পরিচয়ের সূত্র ধরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। এই সম্পর্কের দুই বছরের মাথায় তারা বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। বিয়ের দেড় বছর পর গত ৪ জুন স্বামীর বাড়ি বাংলাদেশের ফরিদপুরে বেড়াতে আসেন সোহেলা।

স্বামী মুস্তাকিন উপজেলার রামনগর ইউনিয়নের রাধানগর গ্রামের কৃষক খবির ফকিরের ছেলে। গত শনিবার সকালে মরিশাস থেকে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আসেন বিবি সোহেলা। পরে স্বামী মুস্তাকিন তাকে তার গ্রামের বাড়ি ফরিদপুরে নিয়ে আসেন।

বিদেশি বধূ আসার খবরে প্রতিবেশীরা মুস্তাকিনের বাড়িতে ভিড় জমাচ্ছেন। মরিশাসের রাজধানী পোর্ট লুইস শহরের এক মুসলিম পরিবারে জন্ম সোহেলার।
মুস্তাকিনের বাবা খবির ফকির বলেন, তাদের সম্পর্ক ও বিয়ের ব্যাপারে তার ছেলে তাদেরকে আগেই জানিয়ে ছিলেন। পরে তারা পরিবারের সদস্যরা মিলে বিমানবন্দরে গিয়ে পুত্রবধূ সোহেলাকে গ্রহণ করেছেন।

এ ব্যাপারে মুস্তাকিন ফকির জানান, তার স্ত্রী এক মাসের ছুটি নিয়ে বাংলাদেশে বেড়াতে এসেছেন।