মা-বাবার বিবাহ বিচ্ছেদ, খোঁজ- খবর না নেওয়া কিশোরের লাশ উদ্ধার

0
171
  • জঙ্গল থেকে প্রতিবন্ধীর লাশ উদ্ধার
  • অর্ধনগ্ন ও দুটি চোখ উপরে তোলার চেষ্টা করার কারনে রক্তাক্ত হয় লাশ
  • মা-বাবার বিবাহ বিচ্ছেদ হওয়ার কারনে মা অন্যত্র বিয়ে করে সংসার করছেন

স্টাফ রিপোর্ট:

হবিগঞ্জ জেলার বানিয়াচংয়ে জঙ্গল থেকে প্রতিবন্ধী কিশোরের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

২০ মার্চ শনিবার দুপুর ১২টায় বানিয়াচং উপজেলার ৩নং ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের জাতুকর্ণ পাড়া গ্রামের মাইজের মহল্লার মেস্তরী বাড়ির পাশের জঙ্গল (পুতা বাড়ি) থেকে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

বানিয়াচং থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হবিগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে প্রেরন করেছে। উদ্ধারকৃত লাশটি অর্ধনগ্ন ও দুটি চোখ উপরে তোলার চেষ্টা করার কারনে রক্তাক্ত ও খুবলানো অবস্থায় পাওয়া গেছে।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, নিহত কিশোরের নাম আশরাফ উদ্দিন (১৩) পিতার নাম আব্দুল আহাদ মিয়া। বাবার বাড়ি পাশ্বর্তী আজমিরীগঞ্জ উপজেলায়। বাবা মায়ের বিবাহ বিচ্ছেদ হওয়ার কারনে মা আমীরুন্নেছা অন্যত্র বিয়ে করে সংসার করছেন।

এ অবস্থায় শারিরীকভাবে প্রতিবন্ধী কিশোরটির বাবা খোজ- খবর নিতেন না।
নিহত আশরাফ উদ্দিন তার নানী আরশ বিবির সাথে একই ইউনিয়নের দোয়াখানী মহল্লায় থাকতো।
শারিরীকভাবে প্রতিবন্ধী নিহত কিশোর স্পষ্টভাবে কথাও বলতে পারতোনা। নিহতের মামাতো বোন ডালিয়া বেগম জানান, শনিবার সকালে ভাত খেয়ে অন্যান্য দিনের মত সকাল ৯টায় সে বাড়ি থেকে বেরিয়ে ছিল। সে সাধারনত বাড়ির আশ-পাশেই ঘোরাঘুরি করে দুপুরে বাড়ি ফিরে আসতো। ডালিয়ার দাবি তাদের বাড়ি থেকে এতদূরে সে কোন দিন যায় নাই। আর প্রতিবন্ধী হওয়ার কারনে তার সাথে অন্য কারো কোন সমস্যাও ছিলোনা সবাই থাকে স্নেহ করত।

এ ব্যাপারে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মাওলানা হাবিবুর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, নিহত কিশোরের লাশটি একটি জঙ্গলঘেরা স্থান থেকে উদ্ধার করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে বানিয়াচং থানার অফিসার ইনচার্য মোহাম্মদ এমরান হোসেন বলেন, নিহত কিশোর প্রতিবন্ধী ছিল। লাশ উদ্ধার করার সময় লাশের গায়ে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। তদন্ত ছাড়া হত্যার কারন বলা যাচ্ছেনা।