ভাগিনার সঙ্গে পরকীয়া মামির,অতপর পিটুনি!

0
88

নিউজ ডেস্ক:
ছোট মামির সঙ্গে পরকীয়া সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন তার ভাগিনা। এ নিয়ে ওই বিবাহিত ভাগিনার সংসারে নিত্য অশান্তি লেগেই থাকতো।

তবে শুক্রবার বিকালে তা চরমে পৌঁছায়। ওই নারীর সঙ্গে ঝগড়ার একপর্যায়ে তাকে বেধড়ক মারধর করেন ভাগিনার শ্বশুর-শাশুড়ি।খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকেরা। ভারতের পশ্চিমবঙ্গে দুর্গাপুরের নিউটাউনশিপ থানার হরিবাজার এলাকায় শুক্রবার এই ঘটনা ঘটলেও এখন পর্যন্ত অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কোনো আইনি পদক্ষেপ নেয়নি পুলিশ। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

পুলিশ জানিয়েছে, নিহত মামির নাম মইতুন্নিশা বিবি। ভাগিনা আসগর আলি তার সঙ্গে বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন বলে স্থানীয়দের দাবি।

২০১৭ সালে আজগরের সঙ্গে জেমুয়ার বাসিন্দা আকিদা বিবির বিয়ে হয়েছিল। তবে বিয়ের পরেও মামি ও ভাগিনার পরকীয়া সম্পর্কে ভাটা পড়েনি।

এ নিয়ে আকিদার সঙ্গে আসগরের সংসারে প্রায়শই ঝামেলা লেগে থাকতো। বেশ কয়েক বার তাদের অশান্তি মেটানোর চেষ্টা করেছেন স্থানীয়রা। তবে তাতেও বিয়ষটির সুরাহা হয়নি।

মেয়ে আকিদার কাছ থেকে জামাইয়ের পরকীয়ার কথা শুনে জেমুয়া থেকে হরিবাজারে ছুটে আসেন আজগরের শ্বশুর-শাশুড়ি শেখ আকশারুল এবং খুরশিদা বিবি।

এর পর শুরু হয় তুমুল ঝগড়া। সেই ঝামেলার মধ্যেই মইতুন্নিশা বিবিকে সামনে পেয়ে বেধড়ক মারধর করেন তারা। মইতুন্নিশা বিবিকে চুলের মুঠি ধরে মারধর করেন আসগরের শ্বশুর-শাশুড়ি।

গুরুতর অসুস্থ মইতুন্নিশা বিবিকে নিয়ে যাওয়া হয় দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে। সেখানকার চিকিৎসকেরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

আসগরের শ্বশুর-শাশুড়ির দাবি, জামাইয়ের সঙ্গে ছোট মামির পরকীয়ার সম্পর্কের জন্যই এ অঘটন ঘটেছে। সূত্র: যুগান্তর