বানিয়াচংয়ে ২ শতাধিক অসহায়ের পাশে আল-খায়ের ফাউন্ডেশন

0
25

নিউজ ডেস্ক:
হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলার ভাটি অঞ্চল মুরাদপুর গ্রাম। গ্রামটির চারপাশেই হাওর আর জলাশয় অবস্থিত। এখানকার মানুষের প্রধান কাজই হচ্ছে কৃষি। আর এই কৃষি নির্ভর এলাকাটির অনেক মানুষ রয়েছে গরীব ও অসহায়। আর এসব অসহায় মানুষদের মুখে হাসি ফুটাল আল খায়ের ফাউন্ডেশন।

পবিত্র রমজান উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (৭ এপ্রিল) দুপুরে মুরাদপুর এসইএসডিপি মডেল উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণ মাঠে আল খায়ের ফাউন্ডেশন ও সমকাল সুহৃদ সমাবেশ-এর যৌথ আয়োজনে ২ শতাধিক অসহায়দের মধ্যে বিতরণ করা হয় খাদ্য সামগ্রী। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন বানিয়াচং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) পদ্মাসন সিংহ।

স্কুল মাঠে সারিবদ্ধভাবে টোকেনপ্রাপ্ত সুবিধাভোগীদের বসিয়ে সুশৃংঙ্খলভাবে চাল ভর্তি বস্তা ও অন্যান্য খাদ্য সামগ্রীর প্যাকেট তাদের হাতে তুলে দেয়া হয়। এর মধ্যে রয়েছে চাল, ডাল, তেল, চিনি, আলু, দুধ ও খেজুরসহ প্রায় আড়াই হাজার টাকা মূল্যের মালামাল।

সমকাল হবিগঞ্জ প্রতিনিধি রাসেল চৌধুরীর সভাপতিত্বে এতে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, যুক্তরাজ্য ভিত্তিক সংগঠন আল-খায়ের ফাউন্ডেশনে কান্ট্রি ডিরেক্টর তারেক মাহমুদ সজিব, আলমপানা চৌধুরী মাসুদ, আমিরুল চৌধুরী, আফরাজুল ইসলাম চৌধুরী, ডাঃ বাদশা, সাংবাদিক জাকারিয়া চৌধুরী ও নিরঞ্জন গোস্বামী শুভসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

খাদ্য সামগ্রী বিতরণ অনুষ্টানের পুর্বে এক সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে ইউএনও পদ্মসন সিংহ বলেন, আল খায়ের ফাউন্ডেশন ও সমকাল সুহৃদ সমাবেশ-এর যৌথ আয়োজনের মধ্য দিয়ে আপনাদের মাঝে এই উপহার বিতরণ করা হচ্ছে। যা অত্যান্ত স্বচ্ছতার মাধ্যমে হচ্ছে। তিনি বলেন, বর্তমান সরকার সাধারণ অসহায় মানুষদের জন্য খুবই আন্তরিক। তাই এসব সহায়তা ছাড়াও টিসিবির মাধ্যমে সরকার সাধারণ মানুষের ঘরে ঘরে সুলভ মূল্যে খাদ্য সমাগ্রী পৌছে দিচ্ছে।

খাদ্যসামগ্রী বিতরণ শেষ হলে যে যার মতো করে বস্তা ভর্তি চালসহ অন্যান্য মালামাল স্বতঃস্ফুর্তভাবে মাথায় করে নিয়ে যেতে দেখা গেছে। অনেকেই বাড়ি ফিরছেন হাসিমুখে। লিল বানুসহ একাধিক সুবিধাভোগী জানান, আমরা অসহায় মানুষ। রমজান মাসে যারা আমাদের এমন উপহার দিয়েছে আল্লাহ তাদের ভালা করুক।