বাংলাদেশ-ভারত বাস সার্ভিস আবার চালু

0
30

নিউজ ডেস্ক:
বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে আন্তঃসীমান্ত বাস সার্ভিস পুনরায় চালু হয়েছে। আখাউড়া-আগরতলা ও বেনাপোল-হরিদাসপুর চেকপোস্ট দিয়ে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে এ আন্তঃসীমান্ত বাস সার্ভিস ফের চালু হয়েছে। করোনা মহামারির কারণে দুই বছরেরও বেশি সময় এ দুটি রুটে বাস চলাচল বন্ধ ছিল।

শুক্রবার (১০ জুন) এই বাস সার্ভিস চালু হয়। সড়কপথে যোগাযোগ চালু হওয়ায় আবার পর্যটন বৃদ্ধি পাবে এবং মানুষে মানুষে সম্পর্ক জোরালো হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

ভারত ও বাংলাদেশ সরকারের কাছ থেকে প্রয়োজনীয় ছাড়পত্র পাওয়া গেলে ডাউকি-তামাবিল চেকপোস্ট দিয়ে যথাসময়ে বাস চলাচল শুরু হবে।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপেরেশনের (বিআরটিসি) নিয়ন্ত্রণাধীন শ্যামলী এন. আর ট্রাভেলসের এই সার্ভিস মোট দু’টি রুটে চলবে।

জানা গেছে, ভারত থেকে প্রতিদিন সকাল ৭টায় সল্ট লেকের করুণাময়ীর কাউন্টার থেকে বাস ছাড়বে। অন্যদিকে ঢাকা থেকেও একই সময় ছাড়বে বাস। কলকাতা থেকে শ্যামলী পরিবহনের বাস সোম, বুধ ও শুক্রবার চলবে। আর ঢাকা থেকে মঙ্গল, বৃহস্পতি ও শনিবার কলকাতার উদ্দেশে বাস ছাড়বে।

কলকাতা থেকে বাকি তিন দিন মঙ্গল, বৃহস্পতি ও শনিবার এই পথে বাস চালাবে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন সংস্থা (বিআরটিসি)। রোববার কোনো দেশেরই বাস চলবে না।

অন্যদিকে সপ্তাহের তিন দিন কলকাতা-ঢাকা-আগরতলা রুটেও বাস চলবে। কলকাতা থেকে দুপুর ১২টায় ছাড়বে আগরতলার বাস। আর আগরতলা থেকে বিকেল ৪টায় ছাড়বে কলকাতার উদ্দেশ্যে।

এ উপলক্ষে শুক্রবার (১০জুন) বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশনের (বি আর টি সি) মতিঝিল আন্তর্জাতিক ডিপোতে আয়োজিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত সচিব এবং বিআরটিসি’র চেয়ারম্যান মো. তাজুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের অতিরিক্ত সচিব নীলিমা আক্তার এবং যুগ্ম-সচিব মো. আনিসুর রহমান।

১৯৯৯ সালের ১৯ জুন কলকাতা-ঢাকার মধ্যে প্রথম শুরু হয়েছিল যাত্রীবাহী বাস চলাচল। আর আগরতলা-কলকাতা রুটে বাস চলাচল শুরু হয় ২০১৫ সাল থেকে।

প্রতিবেশি এই দুই দেশের মধ্যে সাশ্রয়ী ও জনবান্ধব যোগাযোগের ক্ষেত্রে একটি বড় পদক্ষেপ এই বাস সার্ভিস, যা বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে যাতায়াতের একটি জনপ্রিয় মাধ্যমও।