পারমিট ছাড়া ওমরাহ নয়, রমজানে রওজা শরীফে প্রবেশের অনুমতি ৫ লাখ মানুষের

0
31

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
পবিত্র রমজান মাস উপলক্ষে বিশ্বের নানা প্রান্ত থেকে ওমরাহ পালন করতে আসছেন ইসলাম ধর্মাবলম্বীরা।বুকিং অনুযায়ী নির্দিষ্ট সময়ে ওমরাহ পালনকারী ও মুসলিমদের প্রবেশে সর্বোচ্চ সহযোগিতা করছে রওজা শরীফের জেনারেল প্রেসিডেন্সির কর্মীরা।

এরই সাথে হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) এবং তার দুসঙ্গীর কবর জিয়ারত নামাজসহ অন্যান্য কাজে সবধরণের সহযোগিতা দেয়া হচ্ছে।

রমজানে রওজা শরীফে জিয়ারতের ইয়াতমারনা এবং তাওয়াক্কালনামায় আবেদন ইস্যু করছে কর্মীরা। আগামী ২০ রমজান পর্যন্ত দৈনিক ১৬ হাজার ৯৮০ টি আবেদন ইস্যু করা হয়েছে। শেষ ১০ দিনে দৈনিক ১১ হাজার ৯৫ টি আবেদন ইস্যু করা হবে। সব মিলিয়ে রমজানসহ ঈদে মোট ৫ লাখ ১৭ হাজার ৭০২ টি আবেদন ইস্যু করা হয়েছে।

রওজা শরীফে প্রবেশের জন্য পৃথক পৃথক দরজা রাখা হয়েছে। সকালে প্রত্যেক পুরুষ ৩৮ নম্বর দরজা প্রাঙ্গন দিয়ে প্রবেশ করবেন এবং রাতে ২ নম্বর দরজা প্রাঙ্গন দিয়ে প্রবেশ করবে।

সকল মহিলাদের ক্ষেত্রে সকালে ২৪ নম্বর দরজা প্রাঙ্গন দিয়ে প্রবেশ করবে এবং রাতে ২৪ এবং ৩৭ নম্বর দরজা দিয়ে প্রবেশ করতে বলা হয়েছে। এছাড়া কবর জিয়ারত ক্ষেত্রে সবাই আস-সালাম ১ নম্বর গেট দিয়ে প্রবেশ করবে।

এদিকে সৌদি আরবের পাবলিক সিকিউরিটি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ওমরাহ হজ পালন করার জন্য রওজা শরীফে প্রবেশ করার সময়ে সকল ওমরাহ পালনকারীদের পারমিট যাচাই করা হবে। এছাড়াও প্রত্যেকের ওমরাহ পারমিট তাদের জাতীয় পরিচয়পত্রের সাথে যথাযথভাবে ইস্যু করা হয়েছে কিনা এবং উক্ত ব্যক্তি তার পারমিটে নির্ধারিত দিনে এবং নির্ধারিত সময়ে ওমরাহ হজ পালন করতে এসেছেন কিনা, এসকল বিষয়ও যাচাই করা হবে।

সৌদি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, যদি কেউ পারমিট ব্যতিত ওমরাহ হজ পালন করেন বা রওজা শরীফে প্রবেশ করেন, তবে তাকে ১০ হাজার রিয়াল জরিমানা করা হবে।

প্রসঙ্গত, সৌদি হজ এবং ওমরাহ মন্ত্রণালয় এর ঘোষণা মোতাবেক, মক্কার গ্র্যান্ড মসজিদে ওমরাহ হজ পালনের জন্য বা নামাজ পড়ার জন্য প্রবেশ করতে কোনপ্রকার পারমিটের প্রয়োজন হবে না। তবে, পবিত্র রওজা শরীফে ওমরাহ হজ পালন বা প্রার্থনার জন্য প্রবেশ করতে অবশ্যই যথাযথ পারমিট থাকা বাধ্যতামূলক। এছাড়াও রওজা শরীফে শুধুমাত্র ৫ বছরের অধিক বয়সী শিশুরাই পারমিটসহ প্রবেশ করতে পারবে। বলে জানিয়েছে মন্ত্রণালয়। খবর: সৌদি গেজেটের।