পাঁচ দিনেও উদ্ধার হয়নি পরিকল্পনামন্ত্রীর মোবাইল

0
353

নিউজ ডেস্ক: রাজধানীর বিজয় সরণি, তেজগাঁও, চন্দ্রিমা উদ্যান, কাফরুল এলাকার প্রায় ডজনখানেক চিহ্নিত ছিনতাইকারীকে ধরে তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে পুলিশ। তবে হদিস মেলেনি পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নানের ছিনতাই হওয়া মোবাইল ফোনটি। স্থানীয় ছিনতাইকারী ও ছিঁচকে চোরের কেউ বলতে পারছে না মোবাইলের রহস্য। তাদের দাবি, তাদের কেউ ছিনতাই করেননি ফোনটি। তাদের নেটওয়ার্কেও পরিকল্পনামন্ত্রীর ফোন ছিনতাইয়ের তথ্য নেই।

সবমিলিয়ে ফোনটি উদ্ধারে ঘাম ঝরাচ্ছে পুলিশ। একাধারে ফোনটি উদ্ধারে মাঠে নেমেছে মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। তবে এখনও ক্লু উদ্ধার করতে পারেনি তারা।

পুলিশ জানায়, ঘটনাস্থলে কোনো সিসিটিভি ক্যামেরা ছিল না। আশপাশের এলাকার ক্যামেরাগুলো থেকে ছিনতাইয়ের সময়ের ফুটেজ উদ্ধার করা হয়েছে। তবে অস্বাভাবিক কিছুই পায়নি পুলিশ।

কাফরুল থানা পুলিশ জানায়, ইতোমধ্যে চন্দ্রিমা উদ্যানের ভেতরের টোকাই-ছিনতাইকারী, শেরেবাংলা মাঠ সংলগ্ন এলাকার টোকাই, আগারগাঁওসহ আশপাশের এলাকার স্থানীয় এবং সন্দেহভাজনদের থানায় আনা হয়েছিল। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে মোবাইলের কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

এই ঘটনায় কাফরুল থানায় একটি মামলা হয়েছে। মামলাটি তদন্ত করছে থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) জিএম ফরিদুল আলম।

তিনি বলেন, ফোন উদ্ধারে সর্বাত্মক চেষ্টা চলছে। আমরা একাধিক লোককে জিজ্ঞাসাবাদও করেছি। এখনও ফোন উদ্ধারের মতো কোনো ক্লু পাওয়া যায়নি। আমরা ছিনতাই হওয়ার জায়গা এবং এর আশপাশের এলাকায় সিসিটিভি ফুটেজ দেখেছি। তবে সিসিটিভি ফুটেজে ছিনতাইয়ের ব্যাপারে তেমন কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

কাফরুল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সেলিমুজ্জামান বলেন, থানা পুলিশ, ডিবিসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিভিন্ন ইউনিট কাজ করছে। তবু এখনও কোনো ক্লু পাওয়া যায়নি। আমরা ফোনটি উদ্ধারে সর্বাত্মক চেষ্টা করছি।

মামলার ছায়া তদন্ত করা ঢাকা মেট্রোপলিটন গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) যুগ্ম কমিশনার মো. মাহবুব আলম বলেন, ফোন ছিনতাইয়ের ঘটনাটি মূলত থানা পুলিশ দেখছে। তবে আমরা থানা পুলিশকে এ বিষয়ে সাপোর্ট দিচ্ছি। ঘটনাস্থল ও এর আশপাশের এলাকায় তেমনভাবে সিসিটিভির আওতায় নেই। তবে ফোন উদ্ধারে ডিবি কাজ করে যাচ্ছে।

উল্লেখ্য, গত রোববার (৩০ মে) পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় থেকে বের হয়ে বিজয় সরণির সিগন্যালে জ্যামে আটকা পড়ে পরিকল্পনামন্ত্রীকে বহনকারী গাড়ি। তখন গাড়ির গ্লাস খুলে মোবাইলে কথা বলছিলেন মন্ত্রী। এ সময় হঠাৎ এক ছিনতাইকারী ছোঁ মেরে মোবাইল ফোনটি নিয়ে যায়। এ ঘটনার পরপরই পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নানের ব্যক্তিগত সহকারী কাফরুল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।