দাঁড়িয়ে পানি পান করা কি জায়েজ?

0
74

ধর্ম ডেস্ক:
কেউ কেউ দাঁড়িয়ে পানি পান করেন। কথা বলার সময় কিংবা খেলাধুলা বা চলাফেরার সময় হাঁটতে হাঁটতে পানি মুখে দেন। কিন্তু এভাবে দাঁড়িয়ে পানি পান করা কি শরিয়তে বৈধ? দাঁড়িয়ে পানি পান করা কি জায়েজ? ভুলে বা ইচ্ছাকৃতভাবে দাঁড়িয়ে পান করলে— কি হুকুম বর্তাবে?

এই প্রশ্নের উত্তর হলো- স্বাভাবিকভাবে দাঁড়িয়ে পানি পান করা মাকরুহে তানজিহি (হালালের পর্যায়ে না হলেও বৈধতার মধ্যে তা হালালের কাছাকাছি)। কিন্তু বিশেষ প্রয়োজনে দাঁড়িয়ে পানি করাতে কোনো সমস্যা নেই। রাসুল (সা.) থেকে দাঁড়িয়ে পানি পান করতে যেমন নিষেধাজ্ঞা এসেছে, তেমনি রাসুল (সা.) নিজেই এবং সাহাবাগণ থেকে দাঁড়িয়ে পানি পানের বিবরণও এসেছে। যা প্রমাণ করে, স্বভাবিকভাবে দাঁড়িয়ে পানি পান করা নিষেধ। কিন্তু কোনো বিশেষ প্রয়োজনে তা বৈধ আছে। যেমন- বসার যায়গা নেই ইত্যাদি।

আবু হুরাইরা (রা.) থেকে বর্ণিত হাদিসে রাসুল (সা.) বলেন, ‘তোমাদের কেউ যেন দাঁড়িয়ে পান না করে, তবে যদি ভুলে যায়, তাহলে যেন বমি করে দেয়। (সহিহ মুসলিম, হাদিস : ২০২৬)

এক হাদিসে আছে, আবু হুরায়রা (রা) বর্ণনা করেন, রাসুল (সা.) বলেন, ‘কারও দাঁড়িয়ে পানি পান করা উচিত নয়। যদি কেউ ভুলে যায়— তাকে অবশ্যই বমি করতে হবে।’ (সহিহ মুসলিম, হাদিস : ৫০২২)

আমর বিন শুয়াইব তিনি তার পিতা, তিনি তার দাদা থেকে বর্ণনা করেন, তিনি বলেন, আমি রাসুল (সা.)-কে দাঁড়িয়ে ও বসে পান করতে দেখেছি। (সুনানে তিরমিজি, হাদিস : ১৮৮৩)

কাবশাতুল আনছারিয়্যা (রা.) থেকে বর্ণিত আছে যে, একবার রাসুল (সা.) তার নিকট প্রবেশ করলেন। তার নিকট একটি ঝুলন্ত পানির পাত্র ছিল। তখন রাসুল (সা.) তা থেকে দাঁড়িয়েই পান করলেন। (সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদিস : ৩৪২৩)

আবদুল্লাহ ইবনে উমর (রা.) থেকে বর্ণিত আছে যে, তিনি বলেন, আমরা রাসুল (সা.)-এর যুগে হেটে, দাঁড়িয়ে খাবার গ্রহণ ও পান করেছি। (সুনানে তিরমিজি, হাদিস : ১৮৮০)