চলতি অর্থবছরে ৬৭ বিলিয়ন ডলার রপ্তানি লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ বাংলাদেশের

0
25

নিউজ ডেস্ক:
চলতি অর্থবছরে ৬৭ বিলিয়ন ডলারের রপ্তানি লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে বাংলাদেশ সরকার। এক সংবাদ সম্মেলনে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেন, “চলতি অর্থবছরে রপ্তানির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৬৭ বিলিয়ন ডলার। এর মধ্যে ৫৮ বিলিয়ন ডলার আসবে পণ্য রপ্তানি থেকে এবং ৯ বিলিয়ন ডলার সেবা খাত থেকে।”

“যেকোনো দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের মেরুদণ্ড হল উপযুক্ত নীতি খুঁজে বের করা এবং সেগুলো সময়মতো বাস্তবায়ন করা। তাছাড়া, বেসরকারি খাতের প্রবৃদ্ধির জন্য সরকারের সহায়তা গুরুত্বপূর্ণ,” যোগ করেন বাণিজ্যমন্ত্রী।

সম্প্রতি পাস হওয়া ২০২২-২৩ অর্থবছরের বাজেট অনুযায়ী, বাংলাদেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধির হার ৭.২৫ শতাংশ। গত অর্থবছরের তুলনায় চলতি অর্থবছরের লক্ষ্যমাত্রা ১১ শতাংশ বেশি।

সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রী আরো বলেন, “রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ সাপ্লাই চেইনকে প্রভাবিত করছে। এর ফলে অনেক প্রয়োজনীয় পণ্যের দাম, বিশেষ করে খাদ্যপণ্যের দাম বেড়েছে। আমেরিকা ও ইউরোপে মুদ্রাস্ফীতি ও বেকারত্ব বাড়ছে। আইএমএফের মতে, বৈশ্বিক প্রবৃদ্ধির হার হবে ৪.৪ শতাংশ এবং আগামী বছরে তা আরো কমতে পারে।”

গত অর্থবছরে পণ্য রপ্তানির পরিমাণ ছিল ৫২ বিলিয়ন ডলার এবং সেবা খাতের আয় ছিল ৮ বিলিয়ন ডলার। এদিকে, গত অর্থবছরে তৈরি পোশাক খাতে রপ্তানির পরিমাণ ছিল ৪২.২ বিলিয়ন ডলার।

চলতি অর্থবছরে এ খাতে ৪৬ বিলিয়ন ডলারের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। টিপু মুনশি বলেন, রপ্তানি লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করতে সরকার নীতিগত সহায়তা দেবে। সরকারি ও বেসরকারি খাতের সম্মিলিত প্রচেষ্টা আমাদের রপ্তানি লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সহায়তা করবে।