খেলা দেখতে গিয়ে মারামারি দেখলেন ক্রিকেটারদের স্ত্রীরা

0
63

স্পোর্টস ডেস্ক:
খেলা দেখতে গিয়ে দর্শকদের মারামারি দেখলেন লিয়ন-রুটদের স্ত্রীরা
চলছে ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়ার মধ্যকার জমজমাট অ্যাশেজ সিরিজের খেলা। ব্রিসবেনের গ্যাবায় মাঠে খেলছেন ক্রিকেটাররা। আর মাঠের বাইরে থেকে তাদের সমর্থন দিতে গ্যালারিতে উপস্থিত হয়েছেন স্ত্রী-প্রেমিকারা।

তবে বৃহস্পতিবার স্বামী-প্রেমিকদের খেলা দেখতে গিয়ে গ্যালারিতে উপস্থিত দর্শকদের মারামারিও দেখে ফেলেছেন নাথান লিয়ন, জো রুটদের সঙ্গিনীরা। মারামারির ঘটনায় মাঠ থেকে ১৩ জন দর্শককে বেরও করে দেওয়া হয়েছে।

ম্যাচের দ্বিতীয় দিন খেলার পুরো নিয়ন্ত্রণ ছিল অস্ট্রেলিয়ার হাতে। কর্পোরেট বক্সে বসে খোশ মেজাজেই ডেভিড ওয়ার্নার, মার্নাস লাবুশেন, ট্রাভিস হেডদের ব্যাটিং দেখছিলেন এমা ম্যাকার্থি (লিয়নের প্রেমিকা), রেবেকা লাবুশেনরা (মার্নাস লাবুশেনের স্ত্রী)।

হুট করেই কর্পোরেট বক্সের সামনের গ্যালারিতে বসা দর্শকরা দুই ভাগে ভাগ হয়ে মারামারি শুরু করে দেন। যা থামাতে পুলিশ ও নিরাপত্তাকর্মীদের ডাকতে হয়।

ডেইলি মেইল অস্ট্রেলিয়ার প্রতিবেদনে জুড়ে দেওয়া ছবিতে দেখা যায়, মারামারির সময় ফোনে কথা বলছেন লিয়নের প্রেমিকা ম্যাকার্থি। তার পাশেই ছিলেন লাবুশেনের স্ত্রী রেবেকা। ইংল্যান্ডের খেলোয়াড়দের স্ত্রী-প্রেমিকারা ছিলেন পাশের বক্সে।

দুই দলের খেলোয়াড়দের স্ত্রী-প্রেমিকারা বন্ধুত্বপূর্ণভাবেই খেলা দেখছিলেন। কিন্তু দর্শকদের মধ্যে সেটি দেখা যায়নি। কীভাবে এবং কী কারণে এই মারামারি শুরু হয়, তা জানা যায়নি। তবে ১৩ জন দর্শককে মাঠ থেকে বের করে দেয় কুইন্সল্যান্ড পুলিশ।

এক মুখপাত্র ডেইলি মেইলকে জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার ব্রিসবেনের গ্যাবা থেকে ১৩ জনকে বের করে দেওয়া হয়েছে। যেখানে মাঠে ঢুকে পড়া দুজন দর্শকও ছিলেন। এদের মধ্যে একজনকে কিশোর অপরাধ আইনে বিচার করা হবে। বাকিদের আদালতে দাঁড়াতে হবে।