ইউরোপ থেকে আসলেও ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন

0
160
  • যুক্তরাজ্যের পর ইউরোপ থেকে আসলে ও কোয়ারেন্টাইন
  • নিজের খরচে নির্ধারিত আবাসিক হোটেলে থাকতে হবে ১৪ দিন
  • কোয়ারেন্টাইন শেষে করোনা নেগেটিভ হলে যাওয়া যাবে বাড়ি


নিউজ ডেস্ক:
যুক্তরাজ্যসহ ইউরোপের যেকোনো দেশ থেকে ফিরলেই যাত্রীদের সরকারি কোয়ারেন্টাইন সেন্টার বা সরকার নির্ধারিত আবাসিক হোটেলে (নিজ খরচে) ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন শেষে করোনা পরীক্ষার ফল নেগেটিভ আসলে বাড়ি যাওয়া যাবে।

৩১ মার্চ থেকে এ আদেশ কার্যকর হয়। গত মঙ্গলবার বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) ফ্লাইট স্ট্যান্ডার্ড অ্যান্ড রেগুলেশন সদস্য গ্রুপ ক্যাপ্টেন চৌধুরী এম জিয়াউল কবির স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি জারি হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ইউরোপসহ অন্যান্য যেকোনো দেশ থেকে আগত যাত্রীদের বিমানবন্দরে অবতরণের পর বিমানে আরোহনের সর্বোচ্চ ৭২ ঘণ্টা বা তার কম সময়ের মধ্যে আরটি-পিসিআর ল্যাবরেটরি পরীক্ষাকৃত করোনা নেগেটিভ সনদ প্রদর্শন করতে হবে। এরপর ইউরোপ ব্যতিত অন্যান্য দেশ থেকে আসা যাত্রীরা হোম কোয়ারেন্টাইনে যাবেন। তবে বিমাববন্দরে নামার পর কারও মধ্যে করোনার লক্ষণ ও উপসর্গ দেখা দিলে তাকেও ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে যেতে হবে।

এর আগে ডিসেম্বরের প্রথমদিকে যুক্তরাজ্যফেরত যাত্রীদের জন্য ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন বাধ্যতামূলক করা হয়। পরবর্তীতে তা কমিয়ে সাতদিন করা হয়।

দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণরোধে সোমবার (২৯ মার্চ) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে করোনা প্রতিরোধে মোট ১৮ দফা নির্দেশনা জারি হয়। ওই নির্দেশনায় বিদেশ থেকে আসা যাত্রীদের ১৪ দিন পর্যন্ত প্রাতিষ্ঠানিক (হোটেলে নিজ খরচে) কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করার নির্দেশনা দেয়া হয়।

গত বছর দেশে প্রথম দফার করোনা সংক্রমণ শুরু হলে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করাসহ নানান ধরনের বিধিনিষেধ আরোপ করে সরকার। তবে এবার সংক্রমণ বাড়ায় সাধারণ ছুটি বা লকডাউন ঘোষণা করা না হলেও বেশ কিছু বিশেষ নির্দেশনা জারি করা হয়েছে। তথ্যসূত্র: জাগোনিউজ